সুদানে শিক্ষক হত্যায় ২৯ গোয়েন্দা কর্মকর্তার মৃত্যুদণ্ড

৩১ ডিসেম্বার ২০১৯ ১০:১৪:৪৬
সুদানে শিক্ষক হত্যায় ২৯ গোয়েন্দা কর্মকর্তার মৃত্যুদণ্ড
রায় ঘোষণার পর শত শত মানুষ অমদুরমান আদালতের বাইরে জাতীয় পতাকা ও আহমাদ আল-খাইরের ছবি নিয়ে জমায়েত হয়ে আনন্দ–উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন। ছবি- সংগ্রহিত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: সুদানে থাকা বন্দি অবস্থায় আহমাদ আল-খাইর নামের এক শিক্ষককে নির্যাতন ও হত্যার দায়ে ২৯ গোয়েন্দা কর্মকর্তাকে মৃত্যুদণ্ডাদেশ দিয়েছেন দেশটির আদালত। সোমবার বিচারক সাদক আবদেল রহমান এ রায় দেন।

২৯ গোয়েন্দা কর্মকর্তাকে মৃত্যুদণ্ডাদেশের পাশাপাশি চার কর্মকর্তাকে তিন বছর করে কারাদণ্ডাদেশ দেওয়া হয়। এ ছাড়া অভিযোগ থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয় সাতজনকে। 

গত জানুয়ারিতে সুদানের পূর্বাঞ্চলীয় কাসালা প্রদেশে ওমর আল-বশির সরকারের বিরুদ্ধে বিক্ষোভে অংশ নিয়েছিলেন আহমাদ আল-খাইর। এরপরই তাকে গ্রেপ্তারের পর বন্দি করে রাখেন গোয়েন্দা কর্মকর্তারা। বন্দি অবস্থাতেই তাকে নির্যাতন চালিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠে।

এরই মধ্যে গত এপ্রিলে সেনাবাহিনীর হস্তক্ষেপে প্রেসিডেন্ট পদ থেকে সরে যেতে বাধ্য হন ওমর আল-বশির। পরে শিক্ষক আহমাদ আল-খাইরের হত্যাকাণ্ড ঘিরে জনগণের মধ্যে প্রবল উত্তেজনা তৈরি হয়। এদিকে এ রায়ের পর শিক্ষক আহমাদ আল-খাইরের ভাই সাদকে বিচারক প্রশ্ন করেছিলেন, মৃত্যুদণ্ডাদেশ পাওয়া ২৯ গোয়েন্দা কর্মকর্তাকে তিনি ক্ষমা করবেন কি না। উত্তরে সাদ ক্ষমা করবেন না বলে জানান। এদিকে রায় ঘোষণার পর শত শত মানুষ অমদুরমান আদালতের বাইরে জাতীয় পতাকা ও আহমাদ আল-খাইরের ছবি নিয়ে জমায়েত হয়ে আনন্দ–উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন। তারা আদালতের রায়কে স্বাগত জানান।

আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের হিসাব মতে, ওমর আল-বশিরের বিরুদ্ধে বিক্ষোভের জেরে অন্তত ১৭৭ জন নিহত হয়েছেন।

সূত্র: বিবিসির

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন