তোমাকে হত্যার পর

১৪ জানুয়ারী ২০২০ ১৪:৪৫:৩৭
তোমাকে হত্যার পর

গুলজার হোসেন গরিব

তোমাকে হত্যার পর প্রেতাত্মারা দখলে নিয়েছিল
মানবিক বাংলাদেশ।
তোমাকে হত্যার পর তোমার সংবিধানের ভিত
ভেঙে দিয়েছিল অমানবিক পাকি পন্থীরা।
তোমাকে হত্যার পর আগুন ধরিয়ে দিয়েছিল
বাংলার সবুজ প্রকৃতির বুকে।

তোমাকে হত্যার পর ভষ্মিভূত করতে চেয়েছিল
মুক্তিযোদ্ধাদের স্বপ্ন।
শহীদি রক্ত আর বীরঙ্গনার হারানো ইজ্জত নিয়ে
করেছিল ছিনিমিনি খেলেছিল হেয় প্রতিপন্ন খেলা
তোমাকে করেছিল অপ্রশংসিত মিথ্যুক।
মুছে দিতে চেয়েছিল তোমার গৌরব গাঁথা
লোমহর্ষক দুঃখ বেদনার ইতিহাস।

তোমাকে হত্যার পর আবার বর্বরতার পটভূমি করেছিল
তোমার স্বাধীন সার্বভৌম মাতৃভূমিকে
দপ্তরে-দপ্তরে সরকারি ক্ষমতার চেয়ারগুলো
দখল করে নিয়েছিল ভণ্ড বাংলাদেশী নিমকহারামিরা।
পদদলিত করেছিল এ জাতির জীবন সংস্কৃতিবোধ।
পতিত করেছিল উর্বর বাঙালি শস্যখেত।
মগজে বুনে দিয়েছিল সাম্প্রদায়িকতার বীজ।
ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে করেছিল বিকারগ্রস্ত।
আলোকিত বিদ্যাঙ্গন করেছিল অন্ধকারাচ্ছন্ন।
নোংরা রাজনীতির চাদরে ঢেকে দিয়েছিল
মানবিক বাংলার আকাশ জমিন।
ধর্ম বিদ্বেষ আর প্রতিহংসার নগররাষ্ট্র করেছিল
মহা-সাম্যের এই বাংলাদেশকে

তোমাকে হত্যার পর
আর কিছুই ভালো রাখেনি তোমার কাঙ্খিত মনোবাসনার।
গণপ্রজাতন্ত্রকে বানিয়েছিল পায়ের পাপোষ
আর এদেশ বিরোধীদের আমোদপ্রমোদের রঙমহল।
তোমাকে হত্যার পর আর ভালো রাখেনি
নব্য গড়ে তোলা তোমার সোনার সংসার।
তোমার বুনে যাওয়া বীজ
পাড়িয়ে-দলিয়ে নষ্ট করে দিয়েছিল
দিনের পর দিন স্বার্থান্ধ প্রজাপতিরা।

তোমাকে হত্যার পর
আবার নীল চাষ আনতে চেয়েছিল তোমার জমিতে।

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন